যদি আমি সুস্থভাবে বেঁচে থাকি তাহলে ব্যাচেলর পয়েন্টের কে কিভাবে আছে সেটা দেখাবোই: অমি

‘ব্যাচেলর পয়েন্টন
‘ব্যাচেলর পয়েন্টন

বিনোদন বিভাগ

নাটকীয় ঘটনার মধ্য দিয়ে সমাপ্তি টানা হলো আলোচিত ও তুমুল দর্শকপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ তৃতীয় সিজনের। দর্শকপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা অবস্থাতেই নাটকটির ইতি টানা হলো। বিষয়টি নিয়ে মন খারাপ দর্শকদের। মন খারাপের হাওয়া বইছে ব্যাচেলর পয়েন্ট টিমের সদস্যদের মাঝেও। এই মন খারাপের সময়ে নাটকটির নির্মাতা কাজল আরেফিন অমি শোনালেন আশার কথা। জানালেন, নাটকটির সিজন ফোর নিয়ে আপাতত কোনো পরিকল্পনা না থাকলেও ব্যাচেলর পয়েন্টের সদস্যরা কে কোথায় থাকবেন বা আছেন- সেটা দেখানোর পরিকল্পনা আছে তার।all Modhuবিজ্ঞাপন, টাচ করুন।

অমি বলেন, ‘যদি আমি সুস্থভাবে বেঁচে থাকি তাহলে ব্যাচেলর পয়েন্ট নাটকের কে কোথায় কিভাবে আছেন- সেটা দেখাবোই। তা যে কোনো প্লাটফর্মে হতে পারে। দীর্ঘ সময় পরও হতে পারে। আমি জিবিত থাকলে দর্শকদের সামনে প্রতিটি সদস্যের শেষ অবস্থা নিয়ে হাজির হবো।’ শেষ পর্বে দেখা গেছে, শুভ আর শিমুলের ওপর হামলার প্রতিশোধ নেয় কাবিলা। পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন তিনি। তার সঙ্গে থানায় দেখা করতে ছুটে যান শুভ। মাফ চেয়ে নেন আগের ভুলের জন্য। শুরু হয় কাবিলাকে ছাড়িয়ে আনার মিশন। যে নাটক দেখে এতোদিন দর্শকরা হেসেছেন, শেষ পর্বে সেই নাটক দেখে দর্শকদের হৃদয়ে হাহাকার ছুয়ে গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেটা প্রকাশ করছেন তারা।

বিজ্ঞাপন, টাচ করুন।

দুঃখভারাক্রান্ত নাটকটির পুরোটিম। অমি জানালেন, ‌’নাটকটির শেষ দিনের শুটিংয়ে আমরা কোনো কথা বলতে পারছিলাম না। প্রতিটি দৃশ্যের শুটিংয়ের মাঝেই কথা বলতে বলতে আবেগি হয়ে পড়ছিলাম সবাই। চোখে জল নিয়ে শেষ দৃশ্যের শুটিং করতে হয়েছে। ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ নাকটটি সমাপ্তি টানার আগ পর্যন্ত দর্শকদের কাছে তুমুল জনপ্রিয়তার তালিকাতেই ছিলো। পরিচালক জানালেন. এটাই তাদের প্রাপ্তি। টানা তিন সিজন জনপ্রিয়তা ধরে রেখে সেই জনপ্রিয়তা থাকা অবস্থাতেই নাটকটির ইতি টানা একটা ভাগ্যের ব্যাপার বলে মন্তব্য তার।

এফএম ইভেন্ট টিম

বিজ্ঞাপন, টাচ করুন।

অমি বলেন, ‘দর্শকদের ভালোবাসা নাটকটির বড় প্রাপ্তি। নাটকটি শেষ করায় দর্শকরা অনেক কষ্ট পাচ্ছেন। কারণ তারাও ব্যাচেলর পয়েন্টের পরিবার। নাটকটি শেষ হওয়ায় অনেকে আমাকে হুমকি দিচ্ছেন। অনুরোধ করছেন সিজন ফোর নির্মাণের। নির্মাতা হিসেবে এটাই আমার প্রাপ্তির জায়গা। দর্শকরা ভালোবাসা থেকেই হুমকি দিচ্ছেন, অনুরোধ করছেন। তবে দর্শকদের প্রতি সম্মান রেখেই জানাচ্ছি, নাটকটি যেনো তাদের মধ্যে এক ঘেয়েমির কারণ না হয়ে আসে সে চেষ্টা আমরা সব সময়ে করেছি। শেষ করার পর বুঝতে পেরেছি এক্ষেত্রে আমরা সফল। এক ঘেয়েমি আসার আগেই শেষ করতে পেরেছি।’ সিজন থ্রিতে ব্যাচেলর হয়ে বাসায় থাকা বন্ধুদের গল্প তুলে ধরা হয়েছে নাটকটিতে। এই সিজনে বিদায় নিয়েছে তিনটি জনপ্রিয়  চরিত্র। নেহাল, আরেফিন ও হাবু ভাই। পাশাপাশি যোগ হয়েছিলো নতুন চরিত্রও। শেষ পর্বে সাসপেন্স রেখেই শেষ হলো তৃতীয় সিজন।  মোশনরক এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারে নাটকটি প্রযোজনা করে ধ্রুব টিভি। এর বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন মিশু সাব্বির, মারজুক রাসেল, তৌসিফ মাহবুব, চাষি আলম, শামীম হাসান সরকার, জিয়াউল হক পলাশ, মুসাফির শোয়েব, মনিরা মিঠু সাবিলা নূর, সানজানা সরকার রিয়া, শিমুলসহ অনেকেই।সূত্র:সমকাল

————————–

সামাজিক বাস্তবতার উপর নির্মিত নাটক-শর্ট ফিল্ম দেখতে নিচের ছবিটিতে টাচ করুন করুন-

উপরের ছবিটিতে ক্লিক করুন।
উপরের ছবিটিতে ক্লিক করুন।

এফএম নিউজ…

আপনার এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গী…

বিজ্ঞাপন+বার্তা বিভাগঃ01831106108 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here