সারাদেশে সরকারের ৫৬০টি মডেল মসজিদ নির্মাণ

মডেল মসজিদ
মডেল মসজিদ

মুজিব বর্ষ’ উপলক্ষে, ধর্মীয় ভুল-ব্যাখ্যা দূর করে ইসলামের সঠিক বার্তা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে সরকার দেশব্যাপী মোট ৫৬০টি মডেল মসজিদ নির্মাণ করছে। এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার একযোগে সারা দেশে ৫০টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে মসজিদগুলোর উদ্বোধন করেন তিনি।

বিজ্ঞাপনে টাচ করুন।
বিজ্ঞাপনে টাচ করুন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মুষ্টিমেয় লোকের জন্য ইসলামকে দায়ী করা যায় না, কিছু লোক ধর্মের নামে সারাবিশ্বে জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করেছে। তিনি আরো বলেন, ইসলাম প্রচার প্রসারে করণীয় সব কিছুই করছে সরকার। অন্যায় রোধে ধর্ম যেন আরো জোরালো অবদান রাখতে পারে সে লক্ষ্যেই মডেল মসজিদ নির্মাণ হচ্ছে। শেখ হাসিনা আরো বলেন, ‘বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ এই দেশে সঠিক ইসলামি মূল্যবোধের চর্চা ও উন্নয়ন এবং ইসলামি সংস্কৃতি বিকাশের উদ্দেশ্যেই আমরা প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের প্রকল্প বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ সরকারের দাবি, বিশ্বে কোনো দেশে একসঙ্গে এত বিপুল সংখ্যক মসজিদ নির্মাণ এটাই প্রথম।

all Modhuবিজ্ঞাপন, টাচ করুন।

নান্দনিক নির্মাণশৈলীতে নির্মিত এসব মডেল মসজিদে রয়েছে একটি করে মিনার। মডেল মসজিদগুলো নির্মাণ করা হয়েছে আরব বিশ্বের মসজিদ কাম ইসলামিক কালচারাল সেন্টারের আদলে। বিভিন্ন আধুনিক সুযোগ-সুবিধাও রাখা হয়েছে। ৪০ শতাংশ জমির ওপর তিন ক্যাটাগরিতে নির্মাণ করা হয়েছে এসব মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র । আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে ব্যবহারের জন্য নিচতলা ফাঁকা রাখা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন, টাচ করুন।
বিজ্ঞাপন, টাচ করুন।

জেলা সদর ও সিটি করপোরেশন এলাকায় নির্মাণাধীন প্রতিটি মসজিদে একসাথে ১২০০ মানুষ নামাজ পড়তে পারবেন। এছাড়া উপজেলা ও উপকূলীয় এলাকার মডেল মসজিদে একসঙ্গে ৯০০ মানুষের নামাজের ব্যবস্থা থাকবে। নামাজের জন্য নারী ও পুরুষদের জন্য আলাদা জায়গা রয়েছে এসব মডেল মসজিদে। দেশের প্রতিটি উপজেলায় নারীদের মসজিদে নামাজ পড়ার ব্যবস্থা এটাই প্রথম। সারাদেশে এসব মসজিদে প্রতিদিন ৪ লাখ ৯৪ হাজার ২০০ জন পুরুষ এবং ৩১ হাজার ৪০০ জন নারী একসঙ্গে নামাজ পড়তে পারবেন।

বিজ্ঞাপন, টাচ করুন
বিজ্ঞাপন, টাচ করুন

এছাড়া মডেল মসজিদে থাকছে লাইব্রেরি, গবেষণাকেন্দ্র, ইসলামী বই বিক্রয়কেন্দ্র, কোরআন হেফজ বিভাগ, শিশু শিক্ষা, অতিথিশালা, বিদেশি পর্যটকদের আবাসন, মৃতদেহ গোসলের ব্যবস্থা, ইমামদের প্রশিক্ষণ, অটিজম কেন্দ্র, গণশিক্ষাকেন্দ্র ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র। প্রতি বছর ১ লাখ ৬৮ হাজার শিশুর প্রাথমিক শিক্ষার ব্যবস্থা এবং ২ হাজার ২৪০ জন দেশি-বিদেশি অতিথির আবাসন সুবিধাও রাখা হচ্ছে এসব মসজিদে। হজযাত্রীদের প্রশিক্ষণসহ হজ পালনের জন্য ডিজিটাল নিবন্ধনের বিশেষ ব্যবস্থা থাকবে এসব মডেল মসজিদে।

————————–

আপনার প্রিয় সব তারকাদের সাক্ষাৎকার দেখতে নিচের পোস্টারে টাচ করুন- 

 পোস্টারে ক্লিক করুন
পোস্টারে ক্লিক করুন

এফএম নিউজ

আপনার এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গী

বিজ্ঞাপন+বার্তা বিভাগঃ01831106108 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here