ফেনীর পরশুরামে মায়ের হাতে ১৪ বছরের ছেলে খুন; এলাকায় চাঞ্চল্য

0
89
নিহত শিশু ইমন
নিহত শিশু ইমন

ফেনীর পরশুরাম উপজেলার চিথলিয়া ইউনিয়নের নোয়াপুর গ্রামে ইমন (১৪) নামে এক শিশুকে মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার পর শিশুটিকে বাড়ির পাশে অগভীর পানির ডোবায় ফেলে রাখা হয়। সবার সন্দেহের তীর তার সৎ মায়ের প্রতি। তবে তার সৎ মা হত্যার কথা অস্বীকার করে বলেন, তার লাশ পানিতে ভাসছে। শরীরে মৃগী রোগ ছিল, সে রোগাক্রান্ত হয়ে পানিতে ডুবে মারা গেছে।

বিস্তারিত দেখুন বিজ্ঞাপনে টাচ করে।
বিস্তারিত দেখুন বিজ্ঞাপনে টাচ করে।

তবে স্থানীয়দের মাধ্যমে জানা যায়, ইমনের শরীরে ক্ষত চিহ্ন এবং আঘাতের দাগ পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে ইমনকে হত্যা করার পর পুকুরে ফেলে দেওয়া হয়। যেখানে হাটু পরিমান পানি ছিল। সেখানে ডুবে মরার প্রশ্নই আসে না।

বিস্তারিত দেখুন বিজ্ঞাপনে টাচ করে।
বিস্তারিত দেখুন বিজ্ঞাপনে টাচ করে।

জানা যায়, নিহত ইমনের বয়স যখন ৯ বছর তখন তার মায়ের সাথে তার বাবার সম্পর্কচ্ছেদ হয়। তখন বাবা মোহাম্মদ ইয়াসিন দ্বিতীয় বিয়ে করেন। ইমনের সৎ মা প্রতিনিয়ত তার উপর মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন চালাতো বলে জানান স্থানীয় সূত্র। সৎ ছেলে বলে ইমনকে সহ্য করতে পারতেন না তার সৎ মা। তাই তাকে হত্যা করার জন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা করেন।

বিস্তারিত দেখুন বিজ্ঞাপনে টাচ করে।
বিস্তারিত দেখুন বিজ্ঞাপনে টাচ করে।

আরো জানা যায়, অভিযুক্তদের দাপটে নিহতের পক্ষে কেউ বাদী হয়ে মামলা করার সাহস পাচ্ছে না। এমতাবস্থায় পুলিশ বাদি হয়ে যদি মামলা করে তবে এই ঘটনার সঠিক তদন্ত বেরিয়ে আসতে পারে বলে আশা করছেন স্থানীয়রা আশা প্রকাশ করছেন। পুলিশ জানায়, ইমনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে তদন্তের পর জানা যাবে এটি আসলে খুন নাকি স্বাভাবিক মৃত্যু।

এফএম নিউজ

আপনার এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গী

বিজ্ঞাপন+বার্তা বিভাগঃ01831106108